লিডসের মাঠে পয়েন্ট হারাল আর্সেনাল

লিডস ইউনাইটেডের মাঠ থেকে স্বস্তির ড্র নিয়ে ফিরেছে দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় পুরোটা সময় একজন কম নিয়ে খেলা আর্সেনাল। ম্যাচটিতে কোন দলই গোলের দেখা পায়নি। ফলে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট হারাল মিকেল আর্তেতার দল। এর আগের ম্যাচে নিজেদের মাঠে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরেছিল তারা।

রোববার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথমার্ধে কয়েকটি সুযোগ হাতছাড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বড় ধাক্কা খায় আর্সেনাল। লিডসের আলিওস্কিকে অযথা মাথা দিয়ে আঘাত করেন পেপে। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে তাকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

তবে পুরো ম্যাচে আক্রমণে আধিপত্য ছিল লিডস ইউনাইটেডের। শুধু গোলরক্ষক বার্নড লেনোর বাঁধা পেরুতে পারল না দলটি। লিডস বল দখল ও আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও প্রথম সুযোগটি পায় আর্সেনাল। তবে ডি-বক্সের বাইরে থেকে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি দানি সেবাইয়োস।

এর দুই মিনিট পর সুযোগ আসে লিডসের প্যাট্রিক ব্যামফোর্ডের সামনে। সতীর্থের কাট-ব্যাক ছয় গজ বক্সের সামনে পেয়ে গোলরক্ষক বরাবর শট নেন এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বড় ধাক্কা খায় আর্সেনাল। লিডসের আলিওস্কিকে অযথা মাথা দিয়ে গুঁতো মেরে বসেন পেপে। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে তাকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। ম্যাচের ৬৪তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো লিডস। তবে স্টুয়ার্ট ডালাসের প্রচেষ্টা দারুণ নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন জার্মান গোলরক্ষক লেনো।

৮১তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোল পায়নি স্বাগতিকেরা। ডি-বক্সের বাইরে থেকে রদ্রিগোর জোরালো শট গোলরক্ষককে ফাঁকি দিলেও ক্রসবারে লেগে ফেরে।

নির্ধারিত সময়ের দুই মিনিট বাকি থাকতে সতীর্থের ক্রসে ব্যামফোর্ডের হেড পোস্টে লেগে ফিরলে আরেকবার হতাশ হতে হয় ১৬ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফেরা লিডসকে। যোগ করা সময়ে তাদের আরও একটি চেষ্টা বাধা পায় পোস্টে।

মার্সেলো বিয়েলসার দল পুরো ম্যাচে গোলের উদ্দেশে শট নিয়েছে ২৫টি, এর ৪টি ছিল লক্ষ্যে। আর্সেনালের ৯ শটের মধ্যে লক্ষ্যে ছিল ২টি। লিডস ৬৬ শতাংশ সময় নিজেদের পায়ে বল রাখে। ৩৪ শতাংশ রাখতে পারে আর্সেনাল।

নয় ম্যাচে চার জয় ও এক ড্রয়ে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ১১তম স্থানে আর্সেনাল। সমান ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্রয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে ১৪ নম্বরে লিডস।